Home / Crime / মুসলিমদের মেরে অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিক্রি করছে চীন

মুসলিমদের মেরে অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিক্রি করছে চীন

সম্প্রতি চীনে উইঘুরসহ অন্য সংখ্যালঘুদের হত্যার পর তাদের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিক্রি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল। একইসঙ্গে এ ঘটনাকে শতাব্দীর সবচেয়ে ভয়াবহ নৃশংসতার সঙ্গেও তুলনা করেছে তারা। এ ব্যাপারে জার্মানিভিত্তিক গণমাধ্যম ডয়চে ভেলে এক প্রতিবেদনে জানায়, চীনের জাতিগত সংখ্যালঘুদের ওপর কোনো মানবতাবিরোধী অপরাধ হয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখতে একটি ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হয়েছিল। ওই ট্রাইব্যুনাল এমন তথ্য জানিয়েছে। এ বিষয়ে ট্রাইব্যুনালের কাউন্সিল হামিদ সাবি জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলকে (ইউএনএইচআরসি) জানান, বহু বছর চীনজুড়ে জোর করে অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সংগ্রহ করা হয়েছিল এবং আজও তা অব্যাহত আছে। নিষিদ্ধ ঘোষিত ফালুন গং-এর বন্দি এবং উইঘুর সংখ্যালঘুদের এই লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করা হয়। এতে লাখ লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ ব্যাপারে সাবি বলেন, ‘জীবন বাঁচাতে অঙ্গ প্রতিস্থাপন একটি বৈজ্ঞানিক ও সামাজিক বিজয়। কিন্তু দাতাকে হত্যা করা অপরাধ। নির্দোষ ও নিরীহ মানুষদের ধরে তাদের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিচ্ছিন্ন করাকে এ শতাব্দীর সবচেয়ে ভয়াবহ গণনৃশংসতা বলে মত দেন তিনি।’ এদিকে ট্রাইব্যুনালের চূড়ান্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চীনের বন্দি এবং ফালুন গং ও উইঘুর মুসলিম সংখ্যালঘুদের ওপর মানবতাবিরোধী অপরাধের প্রমাণ পেয়েছে তারা। দীর্ঘ ২০ বছর ধরে চীন সরকার সংখ্যালঘু গোষ্ঠীর লোকদের হত্যা করে তাদের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ নিয়ে বিক্রি করছে। এদিকে বন্দি ও সংখ্যালঘু ছাড়াও জীবিত বা মৃত ব্যক্তির কিডনি, লিভার, হার্ট, ফুসফুস, কর্নিয়া এবং ত্বকের চামড়া বিক্রির জন্য অপসারণ করা হয় বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। বেইজিং এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। তারা বলছে, ২০১৫ সাল থেকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিতদের অঙ্গও তারা আর ব্যবহার করে না৷ আধ্যাত্মিক গোষ্ঠী ফালুং গংকে ২০ বছর আগে নিষিদ্ধ করা হলে এর ১০ হাজার সদস্য বেইজিংয়ে নীরব প্রতিবাদ করতে আসেন। এরপর এদের বেশিরভাগকে জেলে পাঠানো হয়। ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান জেফ্রি নিস বলেন, সরকার, জাতিসংঘ এবং এর সঙ্গে যারা যুক্ত, তারা এটি প্রমাণের জন্য আর অন্ধ দৃষ্টি রাখতে পারবে না। সাবেক যুগোস্লাভিয়ার রাষ্ট্রপতি স্লোবোডান মিলোসেভিকের বিচারের নেতৃত্ব দেওয়া প্রসিকিউটর নিস বলেন, ট্রাইব্যুনালের অনুসন্ধানের পর এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। চীনা নাগরিকদের পাশাপাশি প্রচুর বিদেশি চীনে গিয়ে অঙ্গ প্রতিস্থাপন করেন।মুসলিমদের মেরে অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিক্রি করছে চীন

About admin

Check Also

কাকরাইলে বিপুল পরিমাণ অর্থ উদ্ধার

র‍্যাবের ক্যাসিনো অভিযান শুরুর পর থেকেই ঘটছে একের পর এক সব চাঞ্চল্যকর ঘটনা। বগুড়ায় ব্যাগভর্তি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *